Fiverr HelpFreelancing Help

Buyer Request A to Z

আপনাদের সবার আগ্রহের ফলশ্রুতি আজকের এই পোস্ট । ✌😊

আমরা যারা ফাইভারে কাজ করি, তাদের মধ্যে সবসময় একটা জিনিস ই কাজ করে_
🐱‍🏍ভাই আমার কাজ নাই, ভাই আমার কাজ চাই। 🐱‍🏍
আচ্ছা,

কাজ পাওয়ার আগে নিজেকে এই ২ টা প্রশ্ন করে নিনঃ

১। আমি যে কাজের সার্ভিস টা ক্লাইন্ট কে দিচ্ছি, সেটা কি আমি নিজে ক্লাইন্ট হলে নিতাম?
২। আমি যে কাজ টা ক্লাইন্ট কে করে দিচ্ছি তার মান কেমন, আমি আমাকে এই কাজের জন্য ১০ এ কত দিব।
উত্তর গুলো নিজের কাছে রেখে নিজেকে যাচাই করুন।
যদি আপনি সেই কাজের জন্য পারফেক্টলি রেডী না হন তাহলে সেই কাজটা নিয়েন না , এতে করে নিজের প্রোফাইলের পাশাপাশি , নিজের দেশের সেলার দের ও ক্ষতি করছেন ।
আজকাল অনেক ক্লাইন্ট মনে করে বাংলাদেশি ফ্রিলান্সার মানেই একদম অভিজ্ঞতাহীন , ছাতার মতো গড়ে উঠা ফ্রিলান্সার গড়ার প্রডাক্ট।
যার ফলে তারা লিখে দেয় Dont waste my time ,If you are from Bangladesh.😒😒😒
কিন্তু বাংলাদেশের ফ্রিলান্সার রা কিন্তু India ও Pakistani ফ্রিলান্স্যার দের চেয়ে অনেক ভালো।

এবার আসি , বায়ার রিকোয়েস্ট এঃ

বায়ার রিকোয়েস্ট মুলত একটা ক্লাইন্ট এর পক্ষ থেকে একটা জবের রিকোয়ারমেন্টস যেটা ক্লাইন্ট নিজের কাজের বর্ননা দিয়ে পোস্ট করে, দুঃখের বিষয়ঃ
তবে বর্তমানে ফেইক ক্লাইন্ট, সেলার এ ভরপুর বায়ার রিকোয়েস্টের মাঠ।
কিন্তু তার মধ্যে ও কিছু বায়ার অবশ্যই আছে, যারা কাজের জন্যই পোস্ট করে , চলুন একটু দেখে নেই রিয়েল বায়ারের সম্ভাব্য বিহেভঃ

১। কাজের পুর্ন বর্ননাঃ

তার কি ধরনের কাজ চাই সে খুব সুন্দর করেই বর্ননা করবে, এবং বলে দিবে যে তার এতো বাজেট এই ধরনের কাজ চাই এতোদিনের মধ্যে চাই। (তবে কিছু ক্ষেত্রে তারতম্য ও হতে পারে।

২। এসিয়ান ক্লাইন্ট হবে না( হলেও খুব কম)

৩। আপনি ফোন দিয়ে চেক করলেই ইউজার নেইম পাবেন, সার্চ করে দেখুন যে এই নামে কোন সেলার আছে নাকি, সেলার হয়ে বায়ার রিকোয়েস্ট সেন্ড করা থেকে ১১১ হাত দূরে থাকুন।

৪। বাজেটঃ

কখনোই অপ্রাসংগিক বাজেট হবে না। একটা কাজের জন্য কি ধরনের বাজেট লাগে ক্লাইন্ট খুব ভাল করেই জানে কখনো এইটার আকাশ পাতাল ব্যবধান হবে না , তবে হ্যা তারতম্য হতে পারে দেখলেই বুঝা যায়।
মোটামোটি এই ধরনের ই হয়ে থাকে , তবে যারা নতুন তাদের এক্সপিরিয়েন্সের জন্য হলে ও সম্ভাব্য সব রিকোয়েস্টে এপ্লাই করা বেটার তার অন্য একটা কারন হলে এতে সে ফাইভারে এনগেজড থাকবে এবং এটা ফাইভার অনেক সময় পজিটিভলি ই দেখে।

বায়ার রিকোয়েস্ট সেন্ড করার নিয়মঃ

১। Read the Project Description till the End:

এটা সত্য যে আমরা যখন দেখি যে, বায়ার আমি যে কাজ জানি সেটাই চায় , পাগলের মতো কপি পেস্ট কভার লেটার/প্রপোসাল সেন্ড করে দেই , তবে এইটা কিন্ত ঠিক না ,বায়ার যা চায় তা জানার জন্য হলেও পুরো জব পোস্ট টা ভালো করে পড়া উচিত । এবং উত্তর দেওয়ার সময় , প্রথম বাক্যটা যেন তার জব রিলেটেড উত্তর হয়।
Example:
I am looking for travel websites for guest post with dofollow backlink. If you have a travel niche website just send the URL to me and I will contact you if I like to buy. Only sites with DA 40+ and traffic +10k. Scammers with sites like tripoto tripatini travelblogs stay away. Only personal sites.
Hello,
This is my personal travel website abc.com which has 10k+ traffic.
লক্ষ্য করে দেখুন আমি আমার প্রথম বাক্যেই তার যে রিকোয়েরমেন্টস আছে সেটা তুলে ধরলাম এবং সে যদি আমার প্রথম বাক্য ও পড়ে আমাকে অবশ্যই রেসপন্স করবে।

২। Keep your cover letter description clean and simple:

খুব সহজ ভাষায় লিখার চেস্টা করবেন সিম্পল ইংরেজিতে , যাতে করে বায়ার আপনার পুরো কথা বুঝতে পারে ।
আপনি যদি ইংরেজীতে এক্সপার্ট ও হন তার পর ও খুব এডভান্সড লেভেলের ইংরেজী ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন , কারন আপনাকে হায়ার করলে ও আপনার সাথে তার কমিউনিকেশন এর প্রয়োজন হবে আর এতে করে আপনার প্রতি তার প্রথমেই একটা পজিটিভ ভিউ আসবে।

৩। Specify your offer:

আপনি ক্লাইন্ট এর জন্য কি করতে পারবেন , কত দিন সময় লাগবে, কত বাজেট লাগবে তা স্পেসিফাই করে দিন যাতে করে ক্লাইনট যখন অনেক গুলো অফার ফিল্টার করবে আপনাকে তার মাথায় থাকে ।
কারন হলো একটা ক্লাইন্ট ও চায় তার কাজ টা পার্ফেক্ট এবং স্মুথলি হোক ।

৪ । make sure you are available today:

কাভার লেটার এর পর এইটা বলতে ভুলবেন না যে, স্যার আমি আজকে এভেলেবল আছি । যাতে করেন ক্লাইন্ট বুঝতে পারে যে হ্যা আপনি ফাইভারে একটিভ এবং তার প্রয়োজন পড়লে সে আপনাকে যে কোন সময় কন্টাক্ট করতে পারবে , এইটা একটা পজিটিভ দিক ।
অনেক সময় বায়ার খুব দ্রুত কাজ শেষ করার জন্য ই বায়ার রিকোয়েস্ট পোস্ট করে সো এইটা আপনাকে এই ধাচের ক্লাইন্ট গুলো কে কনভার্ট করতে হেল্প করবে ।

। Don’t send a copy or same cover letter for all client:

ভাই , প্লিজ প্লিজ এন্ড প্লিজ ,
কপি পেস্ট কাভার লেটার সেন্ড কইরেন না , হয়তো ভাগ্যের ভাটায় টান পরে কিছু ক্লাইন্ট কপি পেস্ট কাভার লেটারে পেয়ে ও যেতে পারেন , তবে এইটা ফিউচারের জন্য ভালো প্র্যাক্টিস না একবার কপি পেস্টে অভ্যস্ত হয়ে গেলে সেখান থেকে আর বের হতে পারবেন না । ক্লাইন্ট যা চায় সেই অনুযায়ী ই কাভার লেটার সেন্ড করুন।

৬। Bid with an average price:

ক্লাইন্টের বাজেট দেখা জরুরি , হ্যা অবশ্যই দেখেন কিন্ত কোন কাজের নরমাল প্রাইস যদি ৬০$ হয় তাহলে ক্লাইন্টের বাজেট ৫০০ দেয়া থাকলে ও আপনি আপনার কাঙ্ক্ষিত বাজেটে বিড করেন এতে করে ক্লাইন্ট বুঝতে পারে যে আপনি ও রিয়েল সেলার কারন মার্কেট প্রাইস সম্পর্কে অবগত আছেন ।

৭। Read the first message carefully

ক্লাইন্ট যে ধরনের কাজ মাথায় নিয়ে পোস্ট করে তা সে প্রথম লাইনেই বলে দেয়(ম্যাক্সিমাম) সো প্রথম লাইন দুই থেকে তিনবার পড়ুন , দেখবেন আপনার মাথায় ও একটা প্ল্যান চলে আসবে এই পোস্ট টা কিভাবে ডিল করবেন ।
ক্লাইন্টের প্রথম লাইনের জবাব আপনি আপনার প্রথম লাইনেই দেন ।

৮ । Don,t called sir/madamঃ

যদি ইউজার নেইম থেকে তার নাম বের করতে পারেন তাহলে নাম ধরেই ডাকুন । হ্যা আমরা অবশ্যই অনুগত কিন্তু আমরা প্রোফেশনাল ও । আমরা এখানে কাস্টমার সার্ভিস দিতে আসিনাই আমরা এখানে নিজেদের স্কিলড বিক্রি করতে এসেছি। আমার পার্সোনাল এক্সপিরিয়েন্সে আমি খুব কমই স্যার , ম্যাডাম বলেছি , মজার বিষয় যাদের আমি নাম ধরে ম্যানশন করেছি তাদের সাথে এখনো আমার ভালো সম্পর্ক বিদ্যমান। \

। Ask some question

এইটা আমার কাছে অনেক বেশি কার্যকরী মনে হয় কারন আপনি যখন ক্লাইন্ট কে রিলেভেন্ট কিছু জিজ্ঞেস করবেন তখন ক্লাইন্ট আপনার মান সম্মত প্রশ্নের জবাব দিতে হলে ও আপনাকে রিপ্লে করবে। আপওয়ার্কে আমার ম্যাক্সিমাম প্রপোসালের উত্তর আসে এইভাবেই, ক্লাইন্ট প্রশ্নের জবাব দেওয়ার জন্য ও রিপ্লে করে।
আমি আমার প্রায় ২ বছরের অভিজ্ঞতাকে এই কিছু শব্দের মধ্যে বর্ননা করলাম, আপনারা যদি উপরের কথাগুলো মাথায় রেখে বায়ার রিকোয়েস্ট সেন্ড করুন আশা করি আপনাদের ভালো রেস্পেন্স আসবে ।
নোটঃ মনে রাখবেন ফাইভারে বর্তমানে ২-৮% রিয়েল বায়ার যারা আসলেই কাজের জন্য আসে আপনাদের তাদের কেই টার্গেট করতে হবে , চেস্টা করবেন প্রতিদিন নির্ধারিত ১০ টা বায়ার রিকোয়েস্ট সেন্ড করতে এতে আপনার অনলাইন এক্টিভিটি বাড়বে।
নিজের স্কিলড ডেভেলাপ করেন দরকার পরলে এক্সপার্টের সহায়তা নেন। মনে রাখবেন আপনি যা শিখছেন তার সব আপনার কাজে লাগবে কি লাগবে না তা কিন্তু আপনার সেক্টরের অভিজ্ঞ মানুষটাই ভালো জানেন , বিনয়ের সাথে তার সাথে কথা বলে নিজের কনফিউশন দূর করে নিন।
সবার জন্য দোয়া রইল ,স্কিলড হোন, ফ্রিলান্সিং করুন , নিজের সাথে সাথে নিজের ফ্যামিলিটাকে ও ভালো রাখুন।
যদি এতটুকু ও উপকার করতে পারি , বা কথা গুলো মনে হয় যে আপনাদের কাজে লাগবে তাহলেই আমার পরিশ্রম সার্থক।
ধন্যবাদ
হৃদয়

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button